1. zobairahmed461@gmail.com : Zobair : Zobair Ahammad
  2. adrienne.edmonds@banknews.online : adrienneedmonds :
  3. annette.farber@ukbanksnews.club : annettefarber :
  4. camelliaubq5zu@mail.com : arnider :
  5. patsymillington@hidebox.org : bennystenhouse :
  6. steeseejep2235@inbox.ru : bobbye34t0314102 :
  7. nikitakars7j@myrambler.ru : carljac :
  8. celina_marchant44@ukbanksnews.club : celinamarchant5 :
  9. sk.sehd.gn.l7@gmail.com : charitygrattan :
  10. clarencecremor@mvn.warboardplace.com : clarencef96 :
  11. dawnyoh@sengined.com : dawnyoh :
  12. chebotarenko.2022@mail.ru : dorastrode5 :
  13. lawanasummerall120@yahoo.com : eltonvonstieglit :
  14. tonsomotoconni401@yahoo.com : fmajeff171888 :
  15. gennieleija62@awer.blastzane.com : gennieleija6 :
  16. judileta@partcafe.com : gildastirling98 :
  17. katharinafaithfull9919@hidebox.org : isabellhollins :
  18. padsveva3337@bk.ru : janidqm31288238 :
  19. michaovdm8@mail.com : latmar :
  20. mahmudCBF@gmail.com : Mahmudul Hasan : Mahmudul Hasan
  21. marti_vaughan@banknews.live : martivaughan6 :
  22. crawkewanombtradven749@yahoo.com : marvinv379457 :
  23. deirexerivesubt571@yahoo.com : meridithlefebvre :
  24. lecatalitocktec961@yahoo.com : normanposey6 :
  25. guscervantes@hidebox.org : ophelia62h :
  26. margarite@i.shavers.skin : pilargouin7 :
  27. gracielafitzgibbon5270@hidebox.org : princelithgow52 :
  28. randi-blythe78@mobile-ru.info : randiblythe :
  29. berrygaffney@hidebox.org : rose25e8563833 :
  30. incolanona1190@mail.ru : sibyl83l32 :
  31. pennylcdgh@mail.com : siribret :
  32. ulkahsamewheel@beach-drontistmeda.sa.com : ulkahsamewheel :
  33. harmony@bestdrones.store : velmap38871998 :
  34. karleengjkla@mail.com : weibad :
  35. whitfeed@sengined.com : whitfeed :
  36. dhhbew0zt@esiix.com : wpuser_nugeaqouzxup :
মেকি বাঙালিয়ানার ভেতর বাহির
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৫:৩৪ পূর্বাহ্ন

মেকি বাঙালিয়ানার ভেতর বাহির

আহমদ মনির
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৫৪৫ বার পড়া হয়েছে

সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে ‘সুশীল’ বাঙালি ও ছিঁচকে নারীবাদীদের (পড়ুন নারীশত্রুদের) উপদ্রব বেশ ভালই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তাদের ভাবখানা এমন যে, তারা এদেশে বাঙালিয়ানার ডিলারশিপ নিয়েছেন। আর এখন বাঙালিয়ানার লাইসেন্স বিলিয়ে বেড়াচ্ছেন। বোরখা, হিজাব, নিকাব, জুব্বা,পাগড়ি ইত্যাদি পোশাক দেখলেই যেনো তাদের দেহে মৃগী রোগীর মতো কম্পন অনুভূত হয়। তাদের কাছে এসকল সুন্দর ঐতিহ্যবাহী পোশাক পড়লেই যেনো বাংলাভাষী মানুষেরাও অবাঙালি হয়ে যায়! বোরখা বা পাগড়ি পরিহিতদের ঠাঁই যেনো বাংলার মাটিতে হওয়া অন্যায়। তাদের ছুড়ে ফেলতে হবে পাকিস্তান, আফগানিস্তান বা আরবে। তবেই বোধহয় বাঙালিয়ানার রক্ষা হবে।

কিছু সময়ের জন্য তর্কের খাতিরে মেনে নিলাম, এগুলো যেহেতু অন্য দেশ প্রথমে প্রচলিত হওয়া পোশাক তাই এগুলো পরা যাবে না! আর পরলে বাঙালিত্ব ছুটে যাবে, তাই এ পোশাক ছুড়ে ফেলতে হবে! সুতরাং এককথায় তাদের বক্তব্য দাঁড়ায়— ‘যাহা ভিনদেশী তাহাই ত্যাগ করো…’ আচ্ছা এবার আসুন আমরা নারীবাদী সেক্যুলাঙ্গারদের সংজ্ঞা মতো ভীনদেশি সব কিছু ত্যাগ করে পিওর বাঙালি হয়ে যাই। অবশ্য এ কাজটি আমাদের ছিঁচকে নারীবাদীরাই আগে শুরু করবেন বলে আশা করি।

আগে তো মানবদেহ এরপর আসে পোশাকের ব্যাপারটা। তাহলে আমাদের ছিঁচকে নারীবাদীরা পোশাকের আগে মানবদেহ থেকেই খাঁটি বাঙালি হওয়া শুরু করুক, আমাদের তথা বঙ্গীয় বাসিন্দাদের মানবদেহ কি একক কোনো জাতিসত্ত্বার পরিচয় বহন করে? উত্তর হবে, না। নৃতাত্ত্বিক সূত্রে বাঙালি মিশ্র জাতি। মানুষের মহাজাতি-সত্তার কমবেশি মিশ্রণ ঘটেছে বাঙালি জাতিতে। নৃবিজ্ঞানীদের মতে নিগ্রীয়, মঙ্গোলীয়, ককেশীয় ও অষ্ট্রেলীয় এই পৃথিক চারটি জাতি সত্তার সংমিশ্রণে বাঙালি জাতি গড়ে উঠেছে। অর্থাৎ বাঙালির দেহে বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের দৈহিক বৈশিষ্ট্য (বর্ণ,আকার, চেহারা, চুল ইত্যাদি) বিদ্যমান। কী সাংঘাতিক ব্যাপার! এতো অঞ্চলের মানুষের বৈশিষ্ট্য বয়ে বেড়াচ্ছি বাঙালিরা! ভীনদেশীদের ব্লাড ও জিন মিশে আছে বাঙালির কোষে কোষে এটা কী মেনে নেয়া যায়?

এখন এই বাঙালি ‘সুশীল’ নারীবাদীরা ‘যা ভীনদেশি তা ত্যাগের’ সূত্র অনুযায়ী নিজ দেহটাকে চার টুকরো করে আফ্রিকা , ককেসাস প্রভৃতি অঞ্চলে উইল করবে? তা না হলে বাঙালি হবার পথে বিষয়টা কেমন অন্তরায় হয়ে গেল না! দেহে সংকর জাত হয়ে বেঁচে থাকা বাঙালিয়ানার আত্মস্বীকৃত ডিলারদের জন্য অপমানজনক হয়ে যাচ্ছে না ব্যাপারটা? কেননা তারা তো ভীন দেশি কোন কিছু গ্রহণ করেন না। তাদের তো এতে বাঙালি জাত নষ্ট হয়ে যায়।

মা ও ছেলের ক্রিকেট খেলার মাঝে যারা মায়ের বোরকা পরিধান করার কারণে বাঙালি মাকে খুঁজে পাননি, সেসকল বাঙালিয়ানার ডিলারদের কাছে প্রশ্ন, আগে বলুন ‘ক্রিকেট’ খেলার মাঝে কোন বাংলাদেশকে খুঁজে পেয়েছেন? ক্রিকেট কী বাংলাদেশের খেলা ? নাকি ইংরেজদের? তাহলে ক্রিকেটে আপনাদের আপত্তি না থাকলেও মায়ের পোশাকে আপত্তি আসলো কোন স্ট্যান্ডার্ড অনুযায়ী? ইংরেজদের ক্রিকেটে চুলকানি না থাকলেও মুসলিম মায়ের বোরকা নিয়ে এতো চুলকানির হেতু কী?

যারা মুসলিমদের শালীন পোশাককে এই দেশি, সেই দেশি বলে আপত্তি জানান কিন্তু তাদের তো দেখা যায় না ওয়েস্টার্ন পোশাক জিন্স , শার্ট-প্যান্ট, টি-শার্ট, টপস নিয়ে কখনো আপত্তি করতে। এমনি ঢাকা ক্লাবসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এখনো লুঙ্গি পরা এলাও না! সেটা নিয়েও তো এই বাঙালিয়ানার ডিলারদের কোন কথা বলতে দেখা যায় না। এই ছিঁচকে নারীবাদীদের ও বাঙালিয়ানার ডিলারদের সমস্যাটা আসলে ভীনদেশি পোষাকে নয়, তাদের আপত্তিটা মূলত ইসলামে‌। আর তারা ইসলামের বিরুদ্ধে আক্রমণটা করেন বাঙালিয়ানার ছদ্মাবরণে। এদের কাছে চে গুয়েভারার ক্যাপে বাঙালিয়ানা ধ্বংস হয় না, ধ্বংস হয় কেবল মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের অনুসরণে পাগড়ি পরিধানে। কুয়েটে স্টুডেন্টরা সারাবছর জিন্স পড়ে যেতে পারবে সমস্যা নেই কিন্তু একদিন শখ করে জুব্বা পড়লেও তাতে সমস্যা হয়ে যায়।

এই বাঙালিয়ানার ডিলারশীপ নেয়া নারীবাদী সেকুলাঙ্গারাই রাজনীতি ও অর্থনীতিতে একপক্ষ পশ্চিমা ডগমাগুলোর জয়গান গায় এবং অপর সমাজবাদের জয়ধ্বনি দিয়ে থাকে। কিন্তু যখনই কোন মুসলিম ইসলামের আদর্শে রাষ্ট্র ও সমাজ পরিচালনার কথা বলে তখনই তারা মৌলবাদী, সাম্প্রদায়িক, ধর্মান্ধ নানা ট্যাগ লাগাতে ঝাঁপিয়ে পড়ে! এদের চোখে ইসলামী পোশাকে সমস্যা, ইসলামী রাজনীতিতে সমস্যা, ইসলামী কালচারে সমস্যা, ইসলামী বইয়ে সমস্যা, গরু কোরবানিতে সমস্যা, মোদ্দাকথা পুরো ইসলামেই সমস্যা। ইসলামের উপর সরাসরি আক্রমণ করতে না পেরে তারা আক্রমণ করে একেক সময় ইসলামের একেক অনুসঙ্গে।

আল্লাহর মেহেরবানীতে মজার ব্যাপার হলো তারা যতই ইসলামের উপর আক্রমণ করছে তরুণ প্রজন্ম ততই ইসলামের দিকে ঝুঁকতে শুরু করেছে। বাংলাদেশে ইসলামী সামাজিক শক্তি ক্রমেই শক্তিশালী হচ্ছে। আর এতেই চুলকানি বেড়ে গেছে রোগাক্রান্তদের। সর্বশেষ বলবো তোমরা চুলকাতে থাকো আর আমরা ইসলামী সভ্যতা বিনির্মাণের পথে এগুতে থাকি। তোমাদের ডাবল স্টান্ডার্ড চরিত্র এই প্রজন্ম বুঝে গেছে, এখন তোমাদের থেকে বাঙালিয়ানার নিবন্ধন নেয়ার জন্য জাতি বসে নেই, এই জেনারেশনের কাছে ইসলাম থাকলেই চলবে। আদর্শিক পরিচয়ই আমাদের কাছে মূখ্য, বাকি সকল পরিচয়ই গৌণ ব্যাপার মাত্র।

 


প্রিয় পাঠক, ‘দিন রাত্রি’তে লিখতে পারেন আপনিও! লেখা পাঠান এই লিংকে ক্লিক করে- ‘দিনরাত্রি’তে আপনিও লিখুন

 

 


প্রিয় পাঠক, ‘দিন রাত্রি’তে লিখতে পারেন আপনিও! লেখা পাঠান এই লিংকে ক্লিক করে- ‘দিনরাত্রি’তে আপনিও লিখুন

লেখাটি শেয়ার করুন 

এই বিভাগের আরো লেখা

Useful Links

Thanks

দিন রাত্রি’তে বিজ্ঞাপন দিন

© All rights reserved 2020 By  DinRatri.net

Theme Customized BY LatestNews