1. zobairahmed461@gmail.com : Zobair : Zobair Ahammad
  2. adrienne.edmonds@banknews.online : adrienneedmonds :
  3. annette.farber@ukbanksnews.club : annettefarber :
  4. camelliaubq5zu@mail.com : arnider :
  5. patsymillington@hidebox.org : bennystenhouse :
  6. steeseejep2235@inbox.ru : bobbye34t0314102 :
  7. nikitakars7j@myrambler.ru : carljac :
  8. celina_marchant44@ukbanksnews.club : celinamarchant5 :
  9. sk.sehd.gn.l7@gmail.com : charitygrattan :
  10. clarencecremor@mvn.warboardplace.com : clarencef96 :
  11. dawnyoh@sengined.com : dawnyoh :
  12. oralia@b.thailandmovers.com : debraboucicault :
  13. chebotarenko.2022@mail.ru : dorastrode5 :
  14. lawanasummerall120@yahoo.com : eltonvonstieglit :
  15. tonsomotoconni401@yahoo.com : fmajeff171888 :
  16. anneliese@a.skincareproductoffers.com : gabrielladavisso :
  17. gennieleija62@awer.blastzane.com : gennieleija6 :
  18. judileta@partcafe.com : gildastirling98 :
  19. katharinafaithfull9919@hidebox.org : isabellhollins :
  20. padsveva3337@bk.ru : janidqm31288238 :
  21. alec@c.razore100.fans : kay18k8921906557 :
  22. michaovdm8@mail.com : latmar :
  23. malinde@b.roofvent.xyz : lauranadeau097 :
  24. adorne@g.makeup.blue : madie2307391724 :
  25. mahmudCBF@gmail.com : Mahmudul Hasan : Mahmudul Hasan
  26. marti_vaughan@banknews.live : martivaughan6 :
  27. crawkewanombtradven749@yahoo.com : marvinv379457 :
  28. deirexerivesubt571@yahoo.com : meridithlefebvre :
  29. ivan.ivanovnewwww@gmail.com : ninetuabtoo :
  30. lecatalitocktec961@yahoo.com : normanposey6 :
  31. guscervantes@hidebox.org : ophelia62h :
  32. clint@g.1000welectricscooter.com : orvilleweigel :
  33. margarite@i.shavers.skin : pilargouin7 :
  34. gracielafitzgibbon5270@hidebox.org : princelithgow52 :
  35. randi-blythe78@mobile-ru.info : randiblythe :
  36. lyssa@g.makeup.blue : rochellchabrilla :
  37. berrygaffney@hidebox.org : rose25e8563833 :
  38. incolanona1190@mail.ru : sibyl83l32 :
  39. pennylcdgh@mail.com : siribret :
  40. ulkahsamewheel@beach-drontistmeda.sa.com : ulkahsamewheel :
  41. harmony@bestdrones.store : velmap38871998 :
  42. karleengjkla@mail.com : weibad :
  43. whitfeed@sengined.com : whitfeed :
  44. basil@b.roofvent.xyz : williemae8041 :
  45. arnoldpeter933@yahoo.com : wilsonroach486 :
  46. dhhbew0zt@esiix.com : wpuser_nugeaqouzxup :
চীনের পশ্চিমাঞ্চলে চেঙ্গিস খানের অভিযান ও নৃশংসতা
সোমবার, ২০ মার্চ ২০২৩, ০১:৪২ পূর্বাহ্ন

চীনের পশ্চিমাঞ্চলে চেঙ্গিস খানের অভিযান ও নৃশংসতা

সাদিক হাসান
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১৮ আগস্ট, ২০২০
  • ৬৪৮ বার পড়া হয়েছে
Mongol-Empire-History

আগের পর্ব: মঙ্গোল যাত্রা: মঙ্গোলিয়ার পুনর্গঠন ও চীন আক্রমণ

চেঙ্গিসীয় রাজত্ব কায়েমের পর স্থানীয় গোত্রগুলো তার আনুগত্য স্বীকার করে নিলেও পার্শ্ববর্তী নেইমেন গোত্র এই অন্যায় দাবীর বিরোধীতা করে বসে। রাজার আদেশ শিরোধার্য না মেনে বরং স্পর্ধা দেখিয়েছে, নেইমেনদের অবশ্যই এর মূল্য দিতে হবে। যেই কথা সেই কাজ। ১২০৫ সালে চেঙ্গিস খান নেইমেনদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে, এবং তাদের উপর প্রথাগত ধ্বংসলীলা চালায়। এতে রাজা মারা গেলেও যুবরাজ কুচলুগ আরও পশ্চিমে কারা ইরতিসের দিকে সরে আসে।

রাজ্য হারানোর বদলা তো নিতেই হবে, কয়েক বছরে সেনা সংগ্রহ করে যুবরাজ কুচলুগ ১২০৮ সালে সেতুছুর ময়দানে চেঙ্গিস খানের মুখোমুখি হয়। কিন্তু একই ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি হতেও সময় লাগেনি। এবার যুবরাজ তার রাজ্য চেঙ্গিসের হাতে ছেড়ে দিয়ে পশ্চিম লিয়াওয়ে পালিয়ে যায়।

পার্শ্ববর্তী রাজ্যে ঘটা ঘটনাগুলো পশ্চিম লিয়াওয়ে অজানা ছিল না, তাই রাজা শিলুগু (গুর খান) যুবরাজকে আশ্রয় দেন, এবং নিজ সেনাবাহিনীর উচ্চ পদস্থ সেনা অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেন। যেহেতু রাজ্য হারা যুবরাজ, তাই আপন মমতায় সম্পর্ক আরও গাঢ় করতে আপন রাজকন্যা হুনহু বা হুনুর সাথে বিবাহ দেন।

একে তো সেনা অফিসার, সেই সাথে রাজ-জামাই— কুচলুগের ক্ষমতা বেড়ে যাওয়াটাই স্বাভাবিক। এহেন পরিস্থিতিতে কুচলুগ আবারো চেঙ্গিস খানের সাথে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিলে বাধা হয়ে দাঁড়ায় আপন শ্বশুর। গুর খান ভাল করেই জানতেন চেঙ্গিস খানকে আক্রমনের সুযোগ দিলে আর রক্ষা নেই। কিন্তু পোষ না মানা কুচলুগ অবশেষে ১২১০ সালে আপন শ্বশুরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘটিয়ে ক্ষমতা দখল করে নেয়।

এবার কুচলুগকে আর পায় কে, নিজ অক্ষে শক্তি বৃদ্ধি করতে আরম্ভ করে চলতে থাকে চেঙ্গিসের বিরুদ্ধে প্রতিশোধের তিব্র প্রস্তুতি। এদিকে ১২১১ সালে চেঙ্গিস চীন আক্রমন করলেও কুচলুগের প্রস্তুতির ঘাটতি থাকায় আর আক্রমন করা হয়ে উঠেনি। সেই সাথে বছর শেষে চেঙ্গিস মঙ্গোলিয়ায় ফিরে আসলে তো আর প্রশ্নই উঠে না। চেঙ্গিস খান গোয়েন্দা মারফত কুচলুগের সামগ্রিক অবস্থা সমন্ধে অবগত হওয়ায় মঙ্গোল ও পশ্চিম লিয়াও সিমান্তের মধ্যবর্তী স্থানীয় গোত্রীয় রাজাদের নিজ ছায়াতলে নিয়ে আসে। এতে কুচলুগ আরও বিপাকে পরে যায়। কারণ এখন মঙ্গোলিয়া আক্রমণ করতে যাওয়া মানেই মাঝের বাঁধার দেয়াল ডিঙ্গিয়ে আক্রমণ করতে হবে, যা লিয়াওয়ের জন্য বড়ই সমস্যার।

চেঙ্গিস খান ১২১৩ সালে আবারো চীন আক্রমণ করলেও কুচলুগ আক্রমণ করেনি। কারণ যদি আবারো ১২১১ সালের মত বছর শেষে ফিরে আসে তবে তো লিয়াওয়ের আর উপায় থাকবে না। সেই সাথে সে এ অপেক্ষাতেও থাকে যে চীনে যদি চেঙ্গিস ধোলাই খায়, তবে এমনিতেই শক্তি কমে যাবে এবং লম্বা যুদ্ধের পর সেনারা আর আরেকটি যুদ্ধে জড়ানোর মত অবস্থাতেও থাকবে না। সেই সুযোগেই মঙ্গোলিয়ানদের উপর লিয়াও বাহিনী ঝাঁপিয়ে পড়বে।

 

জুরচেন জিনের মঙ্গোল বিজয়; Image Source: en.wikipedia.org

জুরচেন জিনের মঙ্গোল বিজয়; Image Source: en.wikipedia.org

 

কপাল মন্দ থাকলে যা হয় আর কি! এত সাধের স্বপ্নগুলো চেঙ্গিসীয় বর্বতার আড়ালে হারিয়ে যেতে থাকে। ১২১৩ সালে বেইজিংয়ের পতন যেন কুচলুগের মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পড়ার সামিল হয়ে দাঁড়ায়। চীনের বুকে চেঙ্গিস খানের একের পর এক বিজয় কুচলুগকে করে তোলে আরও দিশেহারা ও আরও ধৈর্যহীন।

১২১৬ সালে চেঙ্গিস যখন জিনদের পিটাতে পিটাতে একেবারে মধ্য চীনে অবস্থান করছিল, ফলে নিজ সীমান্ত ও লিয়াও সীমান্ত থেকে ছিল বহুদূরে এই সুযোগে চেঙ্গিস খানের আস্রয়ে থাকা বুবেলিক/বাওবেলিক গোত্রের উপর কুচলুগ আক্রমণ করে বসে। কুচলুগ জানত ইচ্ছা করলেও চেঙ্গিস তার বিশাল বাহিনী নিয়ে আক্রমণ করতে অক্ষম। সত্যিও ছিল তাই। কিন্তু চেঙ্গিস নিজে না এসে নিজের সেরা জেনারেলদের একজন জেবেকে কুচলুগ ঠেকাতে প্রেরণ করে।

কুচলুগ যেভাবে হিসেব কষেছিল সে অনুপাতে চেঙ্গিস বাহিনী যুদ্ধক্ষেত্রে পৌছানোর পূর্বেই স্থানীয় গোত্রগুলোর দখল নেয়ার যথেষ্ট সময় ছিল। কিন্তু চীনের পাহাড়ি পরিবেশে দুর্বার আক্রমণ শানাতে অভ্যস্ত জেবে পূর্বপরিকল্পিত পথ ছেড়ে শি শিয়ার মাঝে বরাবর পাহাড়ি পথকেই বেছে নেয়, এতে করে একদিকে সময়ের হিসেবও যেমন কমে আসল ঠিক তেমনি পথ চেয়ে থাকা লিয়াও গোয়েন্দারা একেবারে হাদারামে পরিণত হল।

১২১৬ সালে হঠাত ভূতের মতই যেন জেবে কুচলুগ বাহিনীকে ধাওয়া করতে লাগল। ধাওয়া খেয়ে লিয়াও রাজ্যের আরও পশ্চিমে কুচলুগ পিছিয়ে আসতে বাধ্য হয়। অবশেষে বেলাসাগুনের প্রান্তরে দুই বাহিনী মুখোমুখি হলে কুচলুগ পরাজিত হয় ও জেবে তাকে হত্যা করে। লিয়াও রাজধানীও এবার চেঙ্গিসের হাতে চলে আসল। জেবে এবার সমগ্র লিয়াও দখলে আক্রমণের পর আক্রমণ শানাতে লাগল ফলে ১২১৮ সালের মাঝেই কোচা ও কাসগড়সহ তিয়েন শানের পাহাড়গুলো পদভূমিতে গড়ে উঠা পশ্চিম লিয়াওয়ে চেঙ্গিসীয় বর্বরতার নিরব সাক্ষী হয়ে থাকে।

 

পরের পর্ব: মঙ্গোল আক্রমণের প্রাক্কালে মুসলিম সাম্রাজ্যের অবস্থা

 

 

প্রিয় পাঠক, ‘দিন রাত্রি’তে লিখতে পারেন আপনিও! লেখা পাঠান এই লিংকে ক্লিক করে- ‘দিনরাত্রি’তে আপনিও লিখুন

 

 


প্রিয় পাঠক, ‘দিন রাত্রি’তে লিখতে পারেন আপনিও! লেখা পাঠান এই লিংকে ক্লিক করে- ‘দিনরাত্রি’তে আপনিও লিখুন

লেখাটি শেয়ার করুন 

এই বিভাগের আরো লেখা

Useful Links

Thanks

দিন রাত্রি’তে বিজ্ঞাপন দিন

© All rights reserved 2020 By  DinRatri.net

Theme Customized BY LatestNews